আইআরআই-এর জরিপ: আওয়ামী লীগ ২৫%, বিএনপি ১০%, উত্তর নাই ৬২%

ইন্টারন্যশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট (আইআরআই) বাংলাদেশে তাদের কাজের অংশ হিসেবে একটি সার্ভে করেছে, যার কিছু অংশ সেপ্টেম্বর মাসে একটি রিপোর্টের মাধ্যমে প্রকাশ করেছে। এই খবরটি বাংলাদেশের পত্রপত্রিকাতেও এসেছিলো। সরকারী সংবাদ সংস্থা বাসসের একটি খবরে এই সার্ভেটি সাইট করে বলা হয়েছিলো যে বাংলাদেশের “৬৬ ভাগ নাগরিক প্রধানমন্ত্রীকে সমর্থন করেন”। এই তথ্যটি নেওয়া হয়েছে “National Survey of Bangladeshi Public Opinion” শীর্ষক সার্ভের পাবলিক ভার্শন থেকে। সার্ভের নন-পাবলিক বা ইন্টারন্যল একটি ভার্শন আমার হাতে এসেছে যাতে আরও চমকপ্রদ একটি তথ্য পাওয়া গেলো। ২০১৮-র এপ্রিল মাসের ১০ তারিখ থেকে মে মাসের ২১ তারিখ পর্যন্ত করা এই সার্ভের একটি ওপেন-এন্ডেড প্রশ্ন (পাবলিক ভার্শনে প্রশ্নটি ওমিট করা হয়েছে) ছিলো: “Thinking now about the national elections, if the parliamentary elections were held next week, for which party would you vote?” এই প্রশ্নের উত্তরে ২৫% উত্তরদাতা বলেছেন আওয়ামী লীগ; ১০% উত্তরদাতা বলেছেন বিএনপি; ১% উত্তরদাতা বলেছেন জামায়াতে ইসলামী; ১% উত্তরদাতা বলেছেন জাতীয় পার্টি; ১% উত্তরদাতা অন্যান্য পার্টির কথা বলেছেন। ৬২% উত্তরদাতা এই প্রশ্নটির উত্তর দেননি বা দিতে চাননি (“don’t know/refused to answer”)।

সূত্র: National Survey of Bangladeshi Public Opinion (April 10 — May 21, 2018)
৬২% উত্তরদাতা ঠিক কেন এই গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নটির উত্তর দেননি তার একটি ক্লু পাওয়া যায় সার্ভের আরেকটি প্রশ্নের উত্তরে। এই অংশটি আমি কোন কমেন্ট ছাড়াই তুলে দিলাম, পাঠক নিজের বুদ্ধি দিয়ে বিবেচনা করে দেখবেন।

সূত্র: National Survey of Bangladeshi Public Opinion (April 10 — May 21, 2018)
সংসদ নির্বাচনে কোন পার্টিতে ভোট দিবেন — এই প্রশ্নটি আইআরআই-এর গত কয়েক বছরে করা সার্ভেগুলিতেই ছিলো। ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৮ সালের মে পর্যন্ত ট্রেন্ড (গ্রে লাইনটি হলো “don’t know/refused to answer”):

সূত্র: National Survey of Bangladeshi Public Opinion (April 10 — May 21, 2018)
মনে রাখতে হবে ২০১৮ সালের সার্ভেটি কোটা আন্দোলন বা নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের মতো বড় পলিটিক্যাল ইভেন্টগুলির আগেই করা। গত আগস্টে আবার ভারতীয় এক সাংবাদিক দাবী করেছিলেন যে: “Hasina regime’s popularity is at its lowest. Even before the children’s movement, Indian intelligence sources put its approval ratings at under 20%.” এই দাবীটি নিয়ে আলাপ করার সময় আওয়ামী লীগেরই এক নেতা আমাকে সেসময় বলেছিলেন যে রিসার্চ এন্ড এনালাইসিস উইংয়ের করা একটি সার্ভেতে তাঁদের পার্টির এপ্প্রুভাল রেটিং এসেছে ১৩%। তখন আমি তাঁর কথাটি বিশ্বাস করিনি তবে এখন আইআরআই-এর এই সার্ভেটি দেখে মনে হচ্ছে আওয়ামী লীগের সমর্থন ২০%-এর নিচে নেমে আসার দাবীটি ভূয়া বা বেইজলেস ছিলোনা। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও অন্য পার্টিগুলির কি অবস্থা হতে পারে এ সংক্রান্ত খুবই গুরুত্বপূর্ণ এই সার্ভের রেজাল্টটি পাবলিক ভার্সন থেকে কেন বাদ দেওয়া হলো বা উইথহেলড রাখা হলো? এই প্রশ্নটির উত্তর আমি জানতে চেয়েছিলাম আইআরআই-এর কাছে। এর একটি লিখিত জবাবে আইআরআই-এর ডেপুটি ডিরেক্টর ফর এক্সটার্নাল অ্যাফেয়ার্স জুলিয়া সিবলে আমাকে জানিয়েছেন: “The poll you reference was conducted as part of a program focused at promoting interparty reconciliation in Bangladesh. Due to the proximity of the upcoming election, the data point you referenced was not included in our public release in an effort to prevent IRI from being drawn into campaign season in a way that could negatively influence the electoral environment. The question was included in the poll for the purpose of informing our own work and was never intended for public release.” এই ডাটাপয়েন্টটি আমি একজন ইন্ডিপেন্ডেন্ট এক্সপার্টের সাথেও শেয়ার করেছি। তিনি তাঁর কমেন্টটি দিলে আমি এই নোটটি আপডেট করবো। পাঠকদের কোনও মন্তব্য বা মতামত থাকলেও আমাকে কমেন্টে বা ইনবক্সে জানাতে পারেন। সার্ভের মেথডোলজি কি ছিলো তার ডিটেইলস:

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.